[an error occurred while processing this directive]

শক্তি চট্টোপাধ্যায়-এর গ্রন্থপঞ্জী

সংকলক : সমীর সেনগুপ্ত

আন্তর্জাল সংস্করণের বিন্যাস ও পরিরক্ষণ : রাজীব চক্রবর্তী



হে প্রেম হে নৈঃশব্দ্য
প্রথম প্রকাশ : ফাল্গুন ১৩৬৭ (মার্চ ১৯৬১)
প্রকাশক : গ্রন্থজগৎ
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'প্রিয়তমা সুন্দরীতমারে, যে আমার উজ্জ্বল উদ্ধার।'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭ ও ৬৪

এটি কবির প্রথম কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৭২। সূচিপত্রে কবিতার নাম নেই, প্রথম পঙ্‌ক্তি বা তার অংশমাত্র আছে। এই গ্রন্থের কবিতাগুলি রচিত হয়েছিল অন্তত দু'বছর পূর্বে। কিন্তু দু-দুবার পাণ্ডুলিপি হারিয়ে যায়, একবার হারায় সমস্ত মুদ্রিত ফর্মা। কবি প্রথমে বইয়ের নাম ভেবেছিলেন 'যম', তারপরে 'নিকষিত হেম', তারপর 'কেলাসিত স্ফটিক', তারও পর বর্তমান নাম। নামের পরিবর্তন অনুযায়ী পৃথ্বীশকেও তিন-তিনবার প্রচ্ছদ আঁকতে হয়েছিল। শক্তি নিজের কবিতাকে চিরকাল 'পদ্য' বলে উল্লেখ করেছেন - নিজের কাব্যসংগ্রহের নামও দিয়েছিলেন 'পদ্যসমগ্র'। এই গ্রন্থেরই অশুদ্ধি সংশোধন অংশে নিজের কবিতা সম্পর্কে 'পদ্য' শব্দটি প্রথম ব্যবহার করতে দেখা যায় তাঁকে। উৎসর্গের উদ্ধৃতিটি বুদ্ধদেব বসু-কৃত বোদলেয়ারের অনুবাদ থেকে গৃহীত।
কুয়োতলা
প্রথম প্রকাশ : ১৯৬১
প্রকাশক : সৃজনী
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'শ্রীমতী বেলা রায়চৌধুরী ও শ্রী সমীর রায়চৌধুরী'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ১২০

এটি শক্তির প্রথম উপন্যাস। রচিত হয়েছিল কাব্যগ্রন্থ 'হে প্রেম হে নৈঃশব্দ্য'এর পূর্বে, কিন্তু প্রকাশিত হয় পরে। নিরুপম বা নিরু নামের একটি নিঃসঙ্গ ও অনুভূতিপ্রবণ বালক দক্ষিণবঙ্গের বহড়ু গ্রামে বড়ো হয়ে উঠছে, তার কাহিনী। এই বালকের মধ্য দিয়ে নিজের কথাই বলেছেন শক্তি - এই নিরুপম তাঁর অনেকগুলি উপন্যাসে ফিরে ফিরে এসেছে।
রূপকথার কলকাতা
প্রথম প্রকাশ : শ্রাবণ ১৩৭২ (আগস্ট ১৯৬৫)
প্রকাশক : নতুন প্রকাশক
প্রচ্ছদ : প্রণব শূর
উৎসর্গ : 'ডাঃ শম্ভুলাল বসাক এবং শ্রী দেবকুমার বসুর করকমলে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৬০

রূপচাঁদ পক্ষী ছদ্মনামে রচিত প্রবন্ধসংগ্রহ। রচনার সংখ্যা ৩২। গ্রন্থের বিষয় ইতিহাসে-বর্তমানে মেশানো কলকাতা শহরের নানা বর্ণনা, নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি থেকে। রচনাগুলি সবই আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল।
ধর্মে আছো জিরাফেও আছো
প্রথম প্রকাশ : আশ্বিন ১৩৭২ (অক্টোবর ১৯৬৫)
প্রকাশক : বীক্ষণ প্রকাশ ভবন
প্রচ্ছদ : নিতাই ঘোষ
উৎসর্গ : 'আধুনিক কবিতার দুর্বোধ্য পাঠকের হাতে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৮৫।
তিন তরঙ্গ
প্রথম প্রকাশ : ১লা অগ্রহায়ণ ১৩৭২ (ডিসেম্বর ১৯৬৫)
প্রকাশক : সাহিত্য
প্রচ্ছদ : মলয়শংকর দাশগুপ্ত
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪৮

তিনজন কবির যৌথ কাব্যগ্রন্থ; সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের 'কাল মধুমাস', অলোকরঞ্জন দাশগুপ্তের 'রক্তাক্ত ঝরোখা', এবং শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের চারটি নাতিক্ষুদ্র কবিতা। সূচিপত্র নেই।
অনন্ত নক্ষত্রবীথি তুমি, অন্ধকারে
প্রথম প্রকাশ : আষাঢ় ১৩৭৩ (জুলাই ১৯৬৬)
প্রকাশক : গ্রন্থজগৎ
প্রচ্ছদ : গণেশ বসু
উৎসর্গ : 'মঞ্জু ও সুরজিতের করকমলে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৩২

কাব্যগ্রন্থ। একটিই দীর্ঘ কবিতা। জলপাইগুড়িতে কবি অমিতাভ দাশগুপ্তের বাড়িতে বসে একদিনে সম্পূর্ণ কবিতাটি রচনা করেন।
লুসি আর্মানীর হৃদয়রহস্য
প্রথম প্রকাশ : জৈষ্ঠ্য ১৩৭৩ (জুন ১৯৬৬)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : নিতাই ঘোষ
উৎসর্গ : 'যার মুখের কথায় উপন্যাসের হারানো পাণ্ডুলিপি ফিরে পেয়েছি সেই মুখরা মীনাক্ষী বিশ্বাসের করকমলে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৪৩

উপন্যাস,রূপচাঁদ পক্ষী ছদ্মনামে রচিত। সাময়িক পত্রিকার পৃষ্ঠায় শক্তি অনেক ছদ্মনাম ব্যবহার করেছেন : স্ফুলিঙ্গ সমাদ্দার,শক্তিনাথ কাব্যতীর্থ,রূপচাঁদ পক্ষী,অভিনব গুপ্ত। এর মধ্যে গ্রন্থে স্থান পেয়েছে শুধু রূপচাঁদ পক্ষী, এখানে ও 'রূপকথার কলকাতা'য়।
পুরোনো সিঁড়ি
প্রথম প্রকাশ : প্রকাশকাল মুদ্রিত নেই, আনুমানিক তারিখ ১৯৬৭
প্রকাশক : দেবকুমার বসু
প্রচ্ছদ : তপনলাল ধর
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৬

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ১৬।
সোনার মাছি খুন করেছি
প্রথম প্রকাশ : আষাঢ় ১৩৭৪ (জুলাই ১৯৬৭)
প্রকাশক : ভারবি
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'মীনাক্ষীকে' (মীনাক্ষী বিশ্বাস)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৬

কাব্যগ্রন্থ। ভূমিকায় কবি লিখেছেন : 'বর্তমান গ্রন্থের নামকারণ শ্রীযুক্ত বিরাম মুখোপাধ্যায়ের। কবিতাগুলি বাছাইও করেছেন তিনি।' বইটিতে কবিতার সংখ্যা ২৭।
হাই সোসাইটি
প্রথম প্রকাশ : আশ্বিন ১৩৭৫ (অক্টোবর ১৯৬৮)
প্রকাশক : মণ্ডল বুক হাউস
প্রচ্ছদ : গণেশ বসু
উৎসর্গ : 'ডাক্তারভাই আর দিদির হাতে' (ডাঃ সুনীল দত্ত ও শ্রীমতী গায়ত্রী দত্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৩৯

উপন্যাস।
হেমন্তের অরণ্যে আমি পোস্টম্যান
প্রথম প্রকাশ : ফাল্গুন ১৩৭৫ (মার্চ ১৯৬৯)
প্রকাশক : অরুণা প্রকাশনী, পরিবেশক সিগনেট বুক শপ
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'সুধেন্দু মল্লিক বন্ধুবরেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৬

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৩২।
ওমর খৈয়ামের রুবাই
প্রথম প্রকাশ : ১ বৈখাখ ১৩৭৮ (এপ্রিল ১৯৬৯)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : অমর পাল
উৎসর্গ : 'পদ্যমাখা পুস্তিকাটির সঙ্গে তুমি সই রুচিরা : রুচিরা শ্যাম প্রীতিভাজনেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৯৬

অনূদিত প্রথম কাব্যগ্রন্থ। অনূদিত শায়ের-এর সংখ্যা ১২৫।
চতুর্দশপদী কবিতাবলী
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৭৭ (মে ১৯৭০)
প্রকাশক : কবয়ঃ
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'বাংলা চতুর্দশপদীর প্রথম প্রণেতা মাইকেল মধুসূদনে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

সনেটসংগ্রহ। বইটিতে উৎসর্গের পরেই রয়েছে মধুসূদনকে নিবেদিত একটি সনেট। পৃষ্ঠাসংখ্যা নেই, কবিতাগুলি নামহীন ও একাদিক্রমে ১০১ পর্যন্ত সংখ্যার দ্বারা চিহ্নিত, প্রতি পৃষ্ঠায় একটি করে।
এখন রাখাল বাণীপ্রিয়র জন্য শাশ্বত স্বীকারোক্তি
প্রথম প্রকাশ : সেপ্টেম্বর ১৯৭১
প্রকাশক : বিশ্বজ্ঞান
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'কবি জীবনানন্দ দাশের স্মৃতির উদ্দেশে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

চারজন কবির কবিতার সংকলন, কবি অজিত দত্ত সম্পাদিত। শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের অংশটির নাম 'এখন'। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের অংশের নাম 'রাখাল', শ্যামল পুরকায়স্থর অংশের নাম 'বাণীপ্রিয়র জন্য' এবং অভিজিৎ ঘোষের অংশের নাম 'শাশ্বত স্বীকারোক্তি'। শক্তির কবিতার সংখ্যা ১২।
পাড়ের কাঁথা মাটির বাড়ি
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৩৭৮ (নভেম্বর ১৯৭১)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : কামরুল হাসান
উৎসর্গ : 'যোগব্রত চক্রবর্তী কল্যাণীয়েষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৬

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা, ১৫টি সনেটসহ ৪১।
উইক এণ্ড টুরিস্ট গাইড
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৭৯ (মে ১৯৭২)
প্রকাশক : গ্রন্থপ্রকাশ
প্রচ্ছদ : উল্লেখ নেই
উৎসর্গ : 'নিরুদ্দেশযাত্রার প্রথম সঙ্গী সন্দীপন চট্টোপাধ্যায় বন্ধুবরেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ১৩৬

ভ্রমণ বিষয়ক গ্রন্থ। প্রবন্ধের সংখ্যা ৩৫। রচনাগুলি প্রায় এক বছর ধরে 'আনন্দবাজার পত্রিকা'য় প্রকাশিত হয়েছিল।
প্রভু নষ্ট হয়ে যাই
প্রথম প্রকাশ : আগস্ট ১৯৭২
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'স্বাতী আর সুনীলের জন্যে' (স্বাতী ও সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪৭।
যুগলবন্দী
প্রথম প্রকাশ : শ্রাবণ ১৩৭৯ (আগস্ট ১৯৭২)
প্রকাশক : বেঙ্গল পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'দুজনের প্রিয়বন্ধু সুনন্দ গুহঠাকুরতাকে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪ ও ৬৮

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে যুগ্মভাবে রচিত কাব্যগ্রন্থ। প্রথমে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ২১টি কবিতা, তারপর শক্তির ২২টি কবিতা। দুজনের দুটি আত্মজৈবনিক গদ্যভূমিকা সহ। সুনীলের ভূমিকার নাম 'সত্যবদ্ধ অভিযান', শক্তির 'কবিতা কলকাতা খেলাঘরে'।
কালিদাসের মেঘদূত
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৩৭৯ (ডিসেম্বর ১৯৭২)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : খালেদ চৌধুরী
উৎসর্গ : 'বিজয়া মুখোপাধ্যায়, শরৎকুমার মুখোপাধ্যায় প্রীতিভাজনেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৯৬

পূর্ণাঙ্গ অনুবাদ। ভূমিকায় শক্তি লিখেছেন : 'আক্ষরিক অনুবাদ আমার কর্ম না। মূল মেঘদূতের ভাব অবলম্বন করে স্বতন্ত্র একধরনের রচনা মাত্র।... আমি যা করতে চেয়েছি তা হলো আধুনিক কাব্যপাঠককে কালিদাসের মঞ্চস্থাপত্যের সামনে দাঁড় করিয়ে দিতে—তাঁদের পরিচিত এবং স্পর্শগ্রাহ্য বাংলাভাষার মাধ্যমে।... সাধুসন্ত শব্দাবলীর গায়ে গায়ে অপাঙ্‌ক্তেয় হেটো-বেটো শব্দ বসিয়েছি। তাতে ফল হয়েছে মারাত্মক। কালিদাসের মঞ্চই ঔজ্জ্বল থেকে উজ্জ্বলতর হয়েছে। মল্লিনাথে নেই, অথচ পার্শ্বাভ্যুদয়ে আছে— এমন পাঁচটি শ্লোক আমি বাহুল্যবোধে বর্জন করেছি।...'
অবনী বাড়ি আছো
প্রথম প্রকাশ : আগস্ট ১৯৭৩
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড
প্রচ্ছদ : সুধীর মৈত্র
উৎসর্গ : 'সুভাষ মুখোপাধ্যায় শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ১০১

উপন্যাস।
সুখে আছি
প্রথম প্রকাশ : ১ বৈশাখ ১৩৮১ (১৫এপ্রিল ১৯৭৪)
প্রকাশক : অন্নপূর্ণা পাবলিশিং হাউস
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'সুনন্দা আর অমিতদার জন্যে' (সুনন্দা ও অমিতাভ চৌধুরী)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৬

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা, তিনটি 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন' সহ ৪৭।
দুজন একাকী
প্রথম প্রকাশ : শ্রাবণ ১৩৮১ (অগস্ট ১৯৭৪)
প্রকাশক : পূর্ণ প্রকাশন
প্রচ্ছদ : শচীন বিশ্বাস
উৎসর্গ : 'নিখিলকে' (নিখিল মুখোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪ ও ৯৪

উপন্যাস।
হৃদয়পুর
প্রথম প্রকাশ : ঝুলনপূর্ণিমা ১৩৮১ (অগস্ট ১৯৭৪)
প্রকাশক : রামায়ণী প্রকাশ ভবন
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'নন্দিতা শ্যামলেন্দুকে' (নন্দিতা ও শ্যামলেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪ ও ৯১

উপন্যাস।
গালিবের কবিতা
প্রথম প্রকাশ : পৌষ ১৩৮১ (জানুয়ারি ১৯৭৫)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : নীতীশ মুখোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'রথীনদাকে' (রথীন সেনগুপ্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২৭

শক্তি চট্টোপাধ্যায় ও আয়ান রশীদ খান অনূদিত কাব্যগ্রন্থ।
ঈশ্বর থাকেন জলে
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮২ (মে ১৯৭৫)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী
প্রচ্ছদ : নীতীশ মুখোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'রুবি ও শেখরকে' (শ্যামলী ও শেখর বসু)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭২

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৭৩।
জ্বলন্ত রুমাল
প্রথম প্রকাশ : ২৫ বৈশাখ ১৩৮২ (মে ১৯৭৫)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং (দ্বিতীয় সংস্করণ)
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ : 'নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

কাব্যগ্রন্থ। এই গ্রন্থের প্রথম সংস্করণটি দেখতে পাইনি। দ্বিতীয় সংস্করণে দেখতে পাচ্ছি, উৎসর্গ : "নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী শ্রদ্ধাস্পদেষু'। কবিতার সংখ্যা, দুটি 'ছিন্নবিচ্ছিন্ন' সহ ৪৯। দ্বিতীয় সংস্করণ বেরিয়েছে দে'জ পাবলিশিং থেকে, তারিখ ফাল্গুন ১৩৯৪ (মার্চ ১৯৮৮)।
অস্ত্রের গৌরবহীন একা
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮২ (মে ১৯৭৫)
প্রকাশক : পুস্তক প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : অসিত পাল
উৎসর্গ : 'গীতা ও পার্থসারথি চৌধুরীকে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪৮

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৩৮।
ছিন্ন বিচ্ছিন্ন
প্রথম প্রকাশ : অক্টোবর ১৯৭৫
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ: পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'শ্রীসাগরময় ঘোষ শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। অতিহ্রস্ব কবিতা, ও অসমাপ্ত কবিতার ছিন্ন পঙ্‌ক্তির সংগ্রহ। কবিতার সংখ্যা ১১২।
পাবলো নেরুদার প্রেমের কবিতা
প্রথম প্রকাশ : মাঘ ১৩৮২ (জানুয়ারি ১৯৭৬)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'গণেশদাকে' (দ্বিতীয় পর্যায় কৃত্তিবাস-এর প্রকাশক গণেশচন্দ্র দে)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৮

অনূদিত কবিতার সংগ্রহ। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ২৯।
কুমারসম্ভব কাব্য
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮৩ (মে ১৯৭৬)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'শ্রী পাঁচুগোপাল ভট্টাচার্য শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৮

অনুবাদ্গ্রন্থ। ভূমিকায় শক্তি লিখেছেন, '...কুমার-এর বর্তমান তর্জমার, বোধ করি, চোদ্দ-পনেরো বছর আগে, আরেকটি তর্জমা করেছিলাম। সেটি জনৈক প্রকাশকের ঘরে বাক্সবন্দী। তিনি দিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করায়, দ্বিতীয়বার এই দুর্লঙ্ঘ্য কাজে হাত দিয়েছি।' এ থেকে বোঝা যায়, 'কুমারসম্ভব কাব্য' তিনি একবার নয়, দু-দুবার অনুবাদ করেছিলেন। তাঁর ভূমিকা থেকে প্রাসঙ্গিক আর একটু-'...আমরা অষ্টমের হরগৌরীবিহার বর্জন করলাম। কেননা বার বার পড়েও এই কাব্যে অষ্টমের প্রয়োজনীয়তা খুঁজে পেলাম না। ...সপ্তমেই কুমারসম্ভব হলে, কোন উদাসীন অষ্টমে বিহারে যাবে।...'
সুন্দর এখানে একা নয়
প্রথম প্রকাশ : জৈষ্ঠ্য ১৩৮৩ (জুন ১৯৭৬)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'কৃষ্ণা মুকুলকে' (কৃষ্ণা ও মুকুল গুহ)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭২

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪৬। তৎসহ রবার্ট ফ্রস্ট থেকে চারটি অনুবাদ, ও 'মনে রেখো' নামের একটি কাব্যনাটক।
আমি চলে যাচ্ছি
প্রথম প্রকাশ : অগস্ট ১৯৭৬
প্রকাশক : শৈব্যা পুস্তকালয়
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'মিনতি ও তারাপদর জন্যে' (মিনতি ও তারাপদ রায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪ ও ৮৬

উপন্যাস।
খৈরী, আমার খৈরী
প্রথম প্রকাশ : মহালয়া ১৩৮৩ (সেপ্টেম্বর ১৯৭৬)
প্রকাশক : আশা প্রকাশনী
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'তিতি তাতারের জন্য' (তিতি ও আনন্দরূপ চট্টোপাধ্যায় : কন্যা ও পুত্র)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮৫

শিশুদের জন্য লেখা অরণ্যভ্রমণের স্মৃতিকথা।
আমি ছিঁড়ে ফেলি ছন্দ, তন্তুজাল
প্রথম প্রকাশ : ডিসেম্বর ১৯৭৬
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'শ্রী ও শ্রীমতী পার্থ মুখোপাধ্যায়কে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৩

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা, ৮টি 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন' সহ ৫৯।
কিন্নর কিন্নরী
প্রথম প্রকাশ : ১ বৈশাখ ১৩৮৪ (মে ১৯৭৭)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'শান্তি আর খুকুকে' (শান্তি ও রীতা লাহিড়ী)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০৮

উপন্যাস।
এই আমি যে পাথরে
প্রথম প্রকাশ : শ্রাবণ ১৩৮৪ (অগস্ট ১৯৭৭)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'মীনা আর শীতলকে' (মীনা ও শীতল চৌধুরী)
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

কাব্যগ্রন্থ। এই সংস্করণটি আমরা দেখতে পাইনি। ২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বাংলাদেশের আগামী প্রকাশনী থেকে এই গ্রন্থের একটি সংস্করণ প্রকাশিত হয় ফেব্রুয়ারি ১৯৮৭ সালে, তথ্যগুলি সেখান থেকে সংকলিত হল।
কবিতার তুলো ওড়ে
প্রথম প্রকাশ : দোলপূর্ণিমা ১৩৮৩ (মার্চ ১৯৭৭)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'নাসিম আর রশীদকে' (নাসিম ও আয়ান রশীদ খান)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। দুটি 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন' সহ কবিতার সংখ্যা ৫৭ - তার মধ্যে দুটি অনুবাদ কবিতা।
হেমন্ত যেখানে থাকে
প্রথম প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ১৯৭৭
প্রকাশক : অনন্য প্রকাশন
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'কবিতা ও বিমলের জন্য' (কবিতা ও বিমল রায়চৌধুরী)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪৫

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৩৬।
চলো বেড়িয়ে আসি (প্রথম পর্ব)
প্রথম প্রকাশ : ২৫ বৈশাখ ১৩৮৪ (৮মে ১৯৭৭)
প্রকাশক : মনোমোহন প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : বিপুল গুহ
উৎসর্গ : 'বরুণ বকসী প্রিয়বরেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ১৫৬

ভ্রমণকাহিনী। ১৯৭৭ সালে ভ্রমণসংক্রান্ত খবরাখবর নির্ভরযোগ্যভাবে পাবার উৎস এখনকার মতো সহজলভ্য ছিল না। ফলে শক্তির এই লেখাগুলি সাময়িকপত্রে প্রকাশিত হবার সঙ্গে সঙ্গে বিপুলভাবে জনপ্রিয় হয় - প্রথম দু'বছরে বইটির পাঁচটি সংস্করণ হয়েছিল।
পাতাল থেকে ডাকছি
প্রথম প্রকাশ : ২৫ বৈশাখ ১৩৮৪ (মে ১৯৭৭)
প্রকাশক : তাম্রলিপি
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'প্রিয়ব্রত চট্টোপাধ্যায়'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪২। পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়-কৃত ন'টি একরঙা লিনোকাট চিত্র সহ।
চলো তিতির সঙ্গে
প্রথম প্রকাশ : প্রকাশকালের উল্লেখ নেই, আনুমানিক ১৯৭৮
প্রকাশক : অনন্য প্রকাশন
প্রচ্ছদ : অরুণ চক্রবর্তী
উৎসর্গ : 'তাতারকে' (পুত্র আনন্দরূপ চট্টোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬১

শিশুদের জন্য লেখা অরণ্যভ্রমণের কাহিনী। কাহিনীর সংখ্যা ৮।
উড়ন্ত সিংহাসন
প্রথম প্রকাশ : মাঘ ১৩৮৪ (ফেব্রুয়ারি ১৯৭৮)
প্রকাশক : অরুণা প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'হিমানীশ গোস্বামী প্রীতিভাজনেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। ১৯৭৮-এ বই হয়ে বেরোলেও, কবিতাগুলির বৃহদংশ গুচ্ছাকারে প্রকাশিত হয়েছিল জগদীশ ভট্টাচার্য সম্পাদিত 'কবি ও কবিতা' পত্রিকার মহালয়া ১৩৭৪ সংখ্যায়। অর্থাৎ রচনাকাল ১৯৬৭-এর প্রথমার্ধ, পুস্তকাকারে প্রকাশের দশ বছরেরও বেশি আগে। এই ধরনের কালসমস্যা শক্তির রচনায় অজস্র, ফলে সামগ্রিকভাবে তাঁর কবিতার একটি কালানুক্রমিক চেহারা পাওয়া অত্যন্ত কঠিন।
মানুষ বড়ো কাঁদছে
প্রথম প্রকাশ : অগস্ট ১৯৭৮
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : নির্মলেন্দু মণ্ডল
উৎসর্গ : 'সুমিত্রা এবং নিত্যপ্রিয়কে' (সুমিত্রা ও নিত্যপ্রিয় ঘোষ)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৫।
ভালোবেসে ধুলোয় নেমেছি
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৩৮৫ (ডিসেম্বর ১৯৭৮)
প্রকাশক :
প্রচ্ছদ : খালেদ চৌধুরী
উৎসর্গ : 'দেবকুমার বসু ও শ্রীমতী বসুকে' (ছন্দা বসু)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ৫০

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪৭।
পরশুরামের কুঠার
প্রথম প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি ১৯৭৮
প্রকাশক : স্বরলিপি
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'দিব্যেন্দুকে' (দিব্যেন্দু পালিত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০ ও ৬২

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪২, কবিলিখিত ভূমিকাসহ। প্রতিটি কবিতা কবির নিজস্ব গদ্যটীকা যুক্ত।
হাইনের প্রেমের কবিতা
প্রথম প্রকাশ : আষাঢ় ১৩৮৬ (জুন ১৯৭৯)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'বিক্রমন নায়ার বন্ধুবরেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৩

অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪৯।
ভাত নেই, পাথর রয়েছে
প্রথম প্রকাশ : আষাঢ় ১৩৮৬ (জুলাই ১৯৭৯)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'মনীষা আর দেবাশিসকে' (মনীষা ও দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৫।
লোরকার কবিতা
প্রথম প্রকাশ : আশ্বিন ১৩৮৬ (অক্টোবর ১৯৭৯)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'বাচ্চুদাকে' (সুরজিৎ বসু)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৬

অমিতাভ দাশগুপ্তর সঙ্গে যুগ্মভাবে অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ৩০। কোনটি কার করা উল্লেখ নেই।
আমাকে দাও কোল
প্রথম প্রকাশ : ১৪ মার্চ ১৯৮০
প্রকাশক : জার্নাল শহর
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৪

কাব্যগ্রন্থ। উৎসর্গপত্র নেই। কবিতার সংখ্যা ১৪ - অবশ্য একটি ছাড়া সব কবিতাই পূর্বে কোনো না কোনো গ্রন্থে প্রকাশিত হয়েছিল।
আমি চলে যেতে পারি
প্রথম প্রকাশ : চৈত্র ১৩৮৬ (এপ্রিল ১৯৮০)
প্রকাশক : সমকাল প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪৮

কাব্যগ্রন্থ। উৎসর্গপত্র নেই। সূচিপত্র নেই। কবিতার সংখ্যা ৩৪।
মন্ত্রের মতন আছি স্থির
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮৭
প্রকাশক : বিশ্ববানী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'রফিক আজাদ প্রিয়বরেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৩

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ১৪, 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন' সহ ৬০।
অঙ্গুরী তোর হিরণ্যজল
প্রথম প্রকাশ : শ্রাবণ ১৩৮৭ (জুলাই ১৯৮০)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'শিখা অতীনকে' (শিখা ও অতীন্দ্রনারায়ণ দত্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৩, তার মধ্যে একটি অনুবাদ।
সুন্দর রহস্যময়
প্রথম প্রকাশ : ভাদ্র ১৩৮৭ (সেপ্টেম্বর ১৯৮০)
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : নীরদ মজুমদার
উৎসর্গ : 'কমলকুমার মজুমদারের স্মৃতির প্রতি'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে যৌথ কাব্যগ্রন্থ। প্রথমার্ধে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের তিনটি দীর্ঘ কবিতা, দ্বিতীয়ার্ধে শক্তির তিনটি দীর্ঘ কবিতা। জ্যাকেটের ভিতরের অংশে নীরদ মজুমদারের বাড়িতে নীরদ মজুমদার, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় ও শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের আলাপরত আলোকচিত্র। নীরদ মজুমদারের ১৮টি রঙিন তৈলচিত্রের শাদাকালো প্রতিলিপি সংবলিত।
১০০ বছরের শ্রেষ্ঠ নিগ্রো কবিতা
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৩৮৭ (নভেম্বর ১৯৮০)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ : 'তরুণতম আফ্রো-আমেরিকান কবিদের প্রতি উৎসর্গীকৃত - সবিনয়ে, পরম ভালোবাসায়'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৬৮

মুকুল গুহ-র সঙ্গে যুগ্মভাবে অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। প্রচ্ছদকারের নামের উল্লেখ নেই। নানা দেশের ৯৯জন নিগ্রো কবির ১২১টি কবিতা। কোনটি কার অনুবাদ তার উল্লেখ নেই। অনেকগুলি সংস্করণ হয়েছে বইটির।
চলো বেড়িয়ে আসি (দ্বিতীয় খণ্ড)
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৩৮৭ (ডিসেম্বর ১৯৮০)
প্রকাশক : শরৎ পাবলিশিং হাউস
প্রচ্ছদ : বিপুল গুহ
উৎসর্গ : 'দীপা ও সমীরকে' (দীপা ও সমীর বসু)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৯১

ভ্রমণকাহিনী। রচনার সংখ্যা ১২৬।
আমি একা বড়ো একা
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮৮ (মে ১৯৮০)
প্রকাশক : বিশ্ববানী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ : 'দীর্ঘদিন স্থায়ী লাচ্চুদাকে' (রথীন ভট্টাচার্য)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৪।
কহলীল জিব্রানের শ্রেষ্ঠ কবিতা
প্রথম প্রকাশ : ভাদ্র ১৩৮৮ (সেপ্টেম্বর ১৯৮১)
প্রকাশক : করুণা প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : খালেদ চৌধুরী
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫ ও ১৩০

মুকুল গুহ-র সঙ্গে যুগ্মভাবে অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। উৎসর্গপত্র নেই, কোনটি কার অনুবাদ তার উল্লেখ নেই। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ৮।
প্রীতীশ নন্দীর কবিতা
প্রথম প্রকাশ : নভেম্বর ১৯৮১
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : অমিয় ভট্টাচার্য
উৎসর্গ : 'সুভাষ মুখোপাধ্যায় শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২০

অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। ভূমিকা সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ৭৮, তার মধ্যে ২৮টির অনুবাদ অমরেন্দ্র চক্রবর্তীর বলে একটি আলাদা কাগজ সেঁটে বিজ্ঞাপিত করা আছে।
মায়াকোভ্‌স্কির শ্রেষ্ঠ কবিতা
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৩৮৮ (ডিসেম্বর ১৯৮১)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : সমরজিৎ
উৎসর্গ : 'অগ্রজ কবি-অনুবাদক সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত শতবার্ষিকী স্মরণে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২৭

সিদ্ধেশ্বর সেন ও মুকুল গুহ-র সঙ্গে যৌথভাবে অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। শক্তি অনুবাদ করেছেন 'জেলপাঠের গান' নামে বিখ্যাত দীর্ঘ কবিতাটি।
প্রচ্ছন্ন স্বদেশ
প্রথম প্রকাশ : মাঘ ১৩৮৮ (জানুয়ারি ১৯৮২)
প্রকাশক : নাভানা
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'ডাঃ কালীকৃষ্ণ চট্টোপাধ্যায় শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৬

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪০।
পুণ্যিপুকুর পুষ্করিণী
প্রথম প্রকাশ : মার্চ ১৯৮২
প্রকাশক : মিঠু প্রকাশনী
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : প্রকাশ কর্মকার
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৬

ছড়াসংগ্রহ। ছড়ার সংখ্যা ২১।
যেতে পারি কিন্তু কেন যাবো
প্রথম প্রকাশ : মার্চ ১৯৮২
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'ম্যাডাম আর সুবোধকে' (শিপ্রা ও সুবোধ দাস)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৩। এই গ্রন্থের জন্য ১৯৮৩ সালের সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পান।
ডুইনো এলেজি
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮৯ (এপ্রিল ১৯৮২)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'বুদ্ধদেব বসু চিরস্মরণীয়েষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৭

মুকুল গুহ-র সঙ্গে যুগ্মভাবে অনূদিত কাব্যগ্রন্থ। জার্মান কবি রাইনার মারিয়া রিলকে-র বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থের অনুবাদ। এক, পাঁচ, ছয়, সাত ও নয় -সংখ্যক এলেজি-র অনুবাদ শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের। অনূদিত মোট এলেজির সংখ্যা নয়।
কোথাকার তরবারি কোথায় রেখেছে
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৮৩
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'সমরেশদা টুনিদিকে' (সমরেশ ও ধরিত্রী বসু)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৩।
কক্সবাজারে সন্ধ্যা
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৮৪
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'শ্যামলী বৌদি আর সেবাদাকে' (শ্যামলী ও সেবাব্রত গুপ্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭২

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৬৩।
ও চিরপ্রণম্য অগ্নি
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৮৫
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'মুনমুন আর সৌমিত্রকে' (মালবিকা ও সৌমিত্র মিত্র)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫০

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা, দুটি 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন' সহ ৪১।
মিষ্টি কথায়, বিষ্টিতে নয়
প্রথম প্রকাশ : ভাদ্র ১৩৯২ (সেপ্টেম্বর ১৯৮৫)
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : অরুণ চট্টোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'তিতি এবং তাতারকে' (তিতি ও আনন্দরূপ চট্টোপাধ্যায় : কন্যা ও পুত্র)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮০

শিশুদের জন্য লেখা ছড়ার বই। ছড়ার সংখ্যা ৭০।
জঙ্গলে পাহাড়ে
প্রথম প্রকাশ : আশ্বিন ১৩৯২ (অক্টোবর ১৯৮৫)
প্রকাশক : এ মুখার্জি অ্যাণ্ড কোং প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'শ্রীযুক্ত রবি সেন শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬ ও ১৪৩

ভ্রমণকাহিনী। কাহিনীর সংখ্যা ২৯।
হাতি ধরিয়ে নায়ার
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা, জানুয়ারি ১৯৮৬
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'বুবু আর পাপ্পাকে' (শমীক ও শৌভিক বসু)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭০

ছোটদের জন্য গল্পগ্রন্থ। গল্পের সংখ্যা ১০।
দাঁড়াবার জায়গা
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৯৩ (মে ১৯৮৬)
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুব্রত গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'ঊষা আর বিটুকে' (ঊষা ও ড. শম্ভুলাল বসাক)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১১১

উপন্যাস।
বিবি-কাহিনী
প্রথম প্রকাশ : ঝুলনযাত্রা ১৩৯৩ (অগস্ট ১৯৮৬)
প্রকাশক : জগদ্ধাত্রী পাবলিশার্স
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ : 'মায়া আর সমীরকে' (মায়া ও সমীর সেনগুপ্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০৮

উপন্যাস।
সন্ধ্যায় সে শান্ত উপহার
প্রথম প্রকাশ : অগস্ট ১৯৮৬
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ ও অঙ্গসজ্জা : বিপুল গুহ, রতন সেন
উৎসর্গ : 'নীরুদার জন্যে' (নীরদ মজুমদার)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৯৫

কাব্যগ্রন্থ। প্রকাশ কর্মকার চিত্রিত। কবিতার সংখ্যা ৮, তা ছাড়া চারটি ছোট কাব্যনাটক।
এই তো মর্মরমূর্তি
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৮৭
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ : 'কাকলি ও বুলুকে' (কাকলি ও অনিরুদ্ধ ঘোষ)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪৫।
বিষের মধ্যে সমস্ত শোক
প্রথম প্রকাশ : ২৫ বৈশাখ ১৩৯৪ (মে ১৯৮৭)
প্রকাশক : মিরান্দা বুকস
প্রচ্ছদ : চারু খান
উৎসর্গ : 'ঝুমা আর আলো-কে' (শর্বরী ও আলোকময় দত্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ৪০

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা, দুটি 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন' সহ ৩৪।
পাবলো নেরুদার শ্রেষ্ঠ কবিতা
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৯৫ (এপ্রিল ১৯৮8)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : অজয় গুপ্ত
উৎসর্গ : 'দুলুকে' (পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০৩

অনুবাদ। ভূমিকায় শক্তি লিখেছেন : 'এই অনুবাদের কাজে মূল স্প্যানিশ থেকে আমায় সাহায্য করেছেন বন্ধু বিক্রমন নায়ার। তাঁর কাছে আমি কৃতজ্ঞ।' মোট অনুবাদের সংখ্যা ৬১।
আমাকে জাগাও
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৮৯
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ : 'অশেষ চট্টোপাধ্যায় বন্ধুবরেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬৪

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৫৫।
অগ্রন্থিত শক্তি চট্টোপাধ্যায়
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯০
প্রকাশক : প্রতিক্ষণ পাবলিকেশনস প্রা. লি.
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : প্রকাশ কর্মকার
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৩৫৩

পুরোনো অগ্রন্থিত কবিতার সংকলন, সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত। গ্রন্থবদ্ধ হয়নি, বা পুরোনো খাতায় খশড়া হিশেবে ছিল, এমন সব কবিতা ও বিচ্ছিন্ন পঙ্‌ক্তির একত্র সংগ্রহ। উৎসর্গপত্র নেই। কবিরচিত প্রস্তাবনা, সম্পাদকের ভূমিকা, সূচিপত্র ও গ্রন্থপঞ্জি আছে। কবিতার সংখ্যা ৪৭০, অসমাপ্ত রচনা ও বিচ্ছিন্ন পঙ্‌ক্তি ৪৫৬।
ছবি আঁকে, ছিঁড়ে ফেলে
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯১
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুব্রত চৌধুরী
উৎসর্গ : 'মীরা এবং সমরকে' (মীরা ও সমরেন্দ্র সেনগুপ্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৫

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪০। ১৯৯৫ সালে এই গ্রন্থের জন্য কবির উদ্দেশে মরণোত্তর রবীন্দ্র পুরস্কার প্রদান করা হয়।
পাতালে টেনেছে আজ
প্রথম প্রকাশ : জুলাই ১৯৯১
প্রকাশক : ক্যাম্প
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ : 'প্রয়াত শিল্পী দেবুদার স্মরণে' (দেবব্রত মুখোপাধ্যায়)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০ ও ৪৮

কাব্যগ্রন্থ। বইটিতে কৃষ্ণেন্দু চাকীর চারটি স্কেচ আছে। কবিতার সংখ্যা ৪১, তা ছাড়া 'উৎক্ষিপ্ত কররেখা' নামে ২১টি বিচ্ছিন্ন পঙ্‌ক্তি।
আমেরিকান ইণ্ডিয়ান শ্রেষ্ঠ কবিতা
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৯৯ (এপ্রিল ১৯৯২)
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : অজয় গুপ্ত
উৎসর্গ : 'হয়ত ওখানেই আশা/শেষ আশা/ আমাদের নিত্য পরম্পরা/বাঁচার/অনন্ত মহিমা অফুরন্ত/ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য/ নেত্রগ্রাহ্য, প্রাণস্পর্শী/অনন্ত সম্পদ'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৭৫

যুগ্মভাবে মুকুল গুহ-র সঙ্গে করা অনুবাদ গ্রন্থ। অনুবাদের সংখ্যা ১৪৮, কিন্তু কোনটি কার করা উল্লেখ নেই।
সেরা ছড়া
প্রথম প্রকাশ : ১লা বৈশাখ ১৪০১ (এপ্রিল ১৯৯৪)
প্রকাশক : বুকফ্রন্ট
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : দেবব্রত ঘোষ
উৎসর্গ : 'কলমিলতা, বাবুই, বুবু ও পাপ্পাকে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪ ও ২৪

ছড়াসংগ্রহ। ছড়ার সংখ্যা ২৪।
জঙ্গল বিষাদে আছে
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯৪
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ : 'ভিক্টোরিয়া আর ভাস্করকে' (ভিক্টোরিয়া ও ভাস্কর দত্ত)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৬২

কাব্যগ্রন্থ। কবিতার সংখ্যা ৪১ এবং একটি ছোটো কাব্যনাটক।
বড়োর ছড়া
প্রথম প্রকাশ : নভেম্বর ১৯৯৪
প্রকাশক : বেঙ্গল সোশ্যাল সার্ভিস লীগ
প্রচ্ছদ ও অলংকরণ : অনুপ রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৮



বয়স্ক সদ্যসাক্ষরদের জন্য রচিত ছড়ার বই। উৎসর্গপত্র নেই, পৃষ্ঠাঙ্ক নেই। বড়ো হরফে মুদ্রিত, ছড়ার সংখ্যা ১৪। কবির জীবিতকালে প্রকাশিত শেষ মৌলিক গ্রন্থ এটি - যদিও নানা কারণে কবি বইটি দেখে যেতে পারেননি।





সম্পাদিত পত্রিকা ও সংকলনগ্রন্থ


কবিতা সাপ্তাহিকী
প্রথম প্রকাশ : ৭ জানুয়ারি ১৯৬৬
প্রকাশক :
প্রচ্ছদ : দেবব্রত মুখোপাধ্যায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

সম্পাদিত কবিতা সাপ্তাহিক। প্রথম প্রকাশ ৭ জানুয়ারি ১৯৬৬। যে কাগজে লেখা সেই কাগজেরই প্রচ্ছদ, প্রচ্ছদে দেবব্রত মুখোপাধ্যায়ের আঁকা স্কেচ প্রতি সংখ্যায় নতুন। মূল্য চার আনা। পনেরোটি সংখ্যা বেরোবার পর পত্রিকাটির নাম বদলে হয়ে যায় 'সাপ্তাহিক বাংলা কবিতা'। মাসছয়েক চলেছিল পত্রিকাটি - কিন্তু তার মধ্যেই এটি তরুণ কবিদের মধ্যে বিপুল উদ্দীপনার সঞ্চার করতে পেরেছিল। শুধু কবিতা-বিষয়ক একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা যে চালানো যায় তা এর পূর্বে আর কেউ ভাবেননি। পরবর্তী কালে এরই প্রণোদনায় বইমেলায় 'দৈনিক কবিতা', 'কবিতাঘন্টিকী' ইত্যাদি পত্রিকা প্রকাশিত হতে আরম্ভ করে।
বাংলা কবিতা বার্ষিকী
প্রথম প্রকাশ : মাঘ ১৩৭৫ (ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯)
প্রকাশক : সখীসংবাদ প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

সম্পাদিত কাব্যসংকলন। একটিই সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছিল।
পূর্ব বাংলার শ্রেষ্ঠ কবিতা
প্রথম প্রকাশ :
প্রকাশক : অরুণা প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'বাংলাদেশের সহোদর কবিসংঘের হাতে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৬ ও ১২৮

সম্পাদিত সংকলন। ৫২ জন কবির ১০৭টি কবিতার সংকলন। সম্পাদনার বিশেষত্ব এই যে, সেই রাষ্ট্রবিপ্লবের দিনে করা হলেও, ফেনায়িত দেশপ্রেমের কবিতা এতে একটিও নেই। বোঝা যায়, সম্পাদকের দৃষ্টি নিবদ্ধ ছিল বিশুদ্ধ কবিতার দিকেই, সামগ্রিকতার দিকে নয়।
একুশের রক্তে
প্রথম প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি, সালের উল্লেখ নেই
প্রকাশক : নবজাতক প্রকাশন
প্রচ্ছদ : খালেদ চৌধুরী
উৎসর্গ : 'একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ স্মরণে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৩৯

সম্পাদিত সংকলনগ্রন্থ। সম্পাদকের ভূমিকার তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৭১।
সাংবাদিকের চোখে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ
প্রথম প্রকাশ : জৈষ্ঠ ১৩৭৮ (মে ১৯৭১)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'আমার বাংলাদেশের সংগ্রামী জনগণের হাতে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ৩৪৪

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদিত গ্রন্থ। বইটিতে দশটি আলোকচিত্র আছে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে শক্তি যে মানসিকভাবে কতদূর সংলিপ্ত ছিলেন, তাঁর সমসাময়িক কবিতা ছাড়াও বাংলাদেশ বিষয়ক তাঁর সম্পাদিত গ্রন্থগুলি তার প্রমাণ।
বাংলাদেশের সাম্প্রতিক গল্প
প্রথম প্রকাশ : রথযাত্রা ১৩৭৮ (জুন ১৯৭১)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : পূর্ণেন্দু পত্রী
উৎসর্গ : 'আবহমানের বাংলাদেশের পাঠকের প্রতি'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২ ও ৪৮৩

সম্পাদিত গল্পসংকলন। গল্পের সংখ্যা ৪৫। উভয় বাংলার লেখকদের রচনা।
ছোটদের বড়দের
প্রথম প্রকাশ : পৌষ ১৩৮০ (জানুয়ারি ১৯৭৪)
প্রকাশক : মডেল পাবলিশিং হাউস
প্রচ্ছদ : সুধীর মৈত্র
উৎসর্গ : 'ছোটদের বড়দের জন্য'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪৮

দেবব্রত মল্লিকের সঙ্গে যুগ্ম সম্পাদনায় ছড়া সংকলন।
অ্যানার্কি অ্যাণ্ড দ ব্লু : নীলিমা ও নৈরাজ্য
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৭৬
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : শুভাপ্রসন্ন
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮৬

শুভাপ্রসন্নর সঙ্গে যুগ্মভাবে সম্পাদিত। ১৬ জন কবির ৩২টি কবিতা, ইংরেজি অনুবাদ সহ, সঙ্গে খ্যাতিমান চিত্রকরদের আঁকা ১৫টি স্কেচ। কবিতার অনুবাদ করেছেন মনীশ নন্দী ও সন্দীপ সরকার।। প্রদোষ দাশগুপ্ত কৃত ভূমিকা, কবি ও চিত্রীদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় সমন্বিত।
সেকালের ছড়া
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৮৭
প্রকাশক : অনন্য প্রকাশন
প্রচ্ছদ : ধীরেন শাসমল, অলংকরণ তরুণ চক্রবর্তী
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২ ও ৩৮

সম্পাদিত ছড়া সংগ্রহ। সূচিপত্র নেই, ছড়ার সংখ্যা ৫০।
এই আলো হাওয়া রৌদ্রে
প্রথম প্রকাশ : ২৯ শ্রাবণ ১৩৯৪ (১৫ আগস্ট ১৯৮৭)
প্রকাশক : বিশ্বজ্ঞান
প্রচ্ছদ : কৃষ্ণেন্দু চাকী
উৎসর্গ : 'উমা ভট্টাচার্যের স্মৃতির উদ্দেশে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৪১

আসামবাসী বাঙালি কবিদের কবিতার সংকলন, বিজিৎকুমার ভট্টাচার্যের সঙ্গে যুগ্মভাবে সম্পাদিত।
দুই বাংলার ছড়া
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা, জানুয়ারি ১৯৯৩
প্রকাশক : প্রতিক্ষণ পাবলিকেশনস্‌ প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'দুই বাংলার একই পাঠককে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২০৪

এখলাসউদ্দিন আহমদের সঙ্গে যুগ্মভাবে সম্পাদিত ছড়াসংকলন, সহযোগী সম্পাদক অশোককুমার মিত্র। দ্বিজেন্দ্রনাথ ঠাকুর থেকে টিপু কিবরিয়া পর্যন্ত ২০৬জন কবির ২১২টি ছড়া। সূচিপত্র নেই।





কবিতাসংকলন


সোহরাব-রুস্তম (মিনিবুক)
প্রথম প্রকাশ : ১বৈশাখ ১৩৭৮ (এপ্রিল ১৯৬৯)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : ও. সি. গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ : 'চে গুয়েভারা: বলিভিয়ার জঙ্গলে প্রবল বোমাবর্ষণের মধ্যে হ্যামকে শুয়ে যিনি গ্যেটে পড়তেন'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৪

সন্দীপন চট্টোপাধ্যায় সম্পাদিত ক্ষুদ্রাকার গ্রন্থ। ১৩টি সনেট ও একটি মুক্তছন্দে রচিত কবিতার সংকলন, তৎসহ প্রকাশ কর্মকারের ১৩টি স্কেচ।
শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের শ্রেষ্ঠ কবিতা
প্রথম প্রকাশ : চৈত্র ১৩৭৯ (মার্চ ১৯৭৩)
প্রকাশক : ভারবি
প্রচ্ছদ : প্রকাশ কর্মকার
উৎসর্গ : 'শ্রীসন্তোষকুমার ঘোষ অগ্রজপ্রতিমেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৪৪

কাব্যসংগ্রহ। শক্তির কবিতার প্রথম বাণিজ্যিক সংকলন এটি। কবিতার সংখ্যা ১৫৬। এই সংস্করণটি এখন লুপ্ত হয়ে গেছে।
শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কাব্যসংগ্রহ
প্রথম প্রকাশ : মাঘ ১৩৮২ (জানুয়ারি ১৯৭৬)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৮৭

চারটি কাব্যগ্রন্থের একত্র সংগ্রহ : 'ঈশ্বর থাকেন জলে', 'চতুর্দশপদী কবিতাবলী', 'অনন্ত নক্ষত্রবীথি তুমি অন্ধকারে' এবং 'হে প্রেম হে নৈঃশব্দ্য'।
কবিতার নির্মাণ সম্পর্কে শক্তি অত্যন্ত খুঁতখুঁতে ছিলেন, কিন্তু বইতে কবিতার অন্তর্ভুক্তি বা সংকলনগ্রন্থের কালানুক্রম বজায় রাখার ব্যাপারে তাঁর উদাসীনতা বারংবার তাঁর ভক্ত পাঠককে আহত করেছে। এই সংকলনটিতে কেন যে এই চারটি কাব্যগ্রন্থ এই ক্রমানুসারে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল তার কোনো যুক্তিগ্রাহ্য কারণ বহু চিন্তা করেও আবিষ্কার করা যায় না।
শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কাব্যসংগ্রহ, দ্বিতীয় খণ্ড
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৩৮৫ (মে ১৯৮৭)
প্রকাশক : বিশ্ববাণী প্রকাশনী
প্রচ্ছদ : গৌতম রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৭৭

চারটি কাব্যগ্রন্থের একত্র সংগ্রহ : 'সোনার মাছি খুন করেছি', 'হেমন্তের অরণ্যে আমি পোস্টম্যান', 'পাড়ের কাঁথা মাটির বাড়ি', 'প্রভু নষ্ট হয়ে যাই' এবং 'এই আমি যে পাথরে'।
কুড়ি বছরের কুড়িটি
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা, ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯
প্রকাশক : মায়া সেনগুপ্ত, 'জেরোপ্রিন্ট'
প্রচ্ছদ : সমীর সেনগুপ্ত
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৩

হাতের লেখায় ছাপা, কাব্যসংকলন, সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত। পাঁচশো কপি ছাপা হয়েছিল, প্রতিটি বই কবিকর্তৃক স্বাক্ষরিত। বইমেলায় এক সন্ধ্যায় সমস্ত কপি বিক্রি হয়ে যায়। সম্পূর্ণ হাতের লেখায় ছাপা দুটি বাংলা বই এর আগে বেরিয়েছে, দুটিই রবীন্দ্রনাথের—১৯২৭ সালে লেখন ও ১৯৭৪??? সালে বৈকালী
একপাত্র সুধা
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা, ১৯৮৪
প্রকাশক : বিদ্যামন্দির
প্রচ্ছদ : সত্য চক্রবর্তী
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৫৮

ক্ষুদ্র আকারে কাব্যসংকলন। কবিতার সংখ্যা ৩০, সূচিপত্র নেই।
সে তার প্রতিচ্ছবি
প্রথম প্রকাশ : ফাল্গুন ১৩৮৯, বইমেলা, ১৯৮৪
প্রকাশক : মায়া সেনগুপ্ত, 'বর্ণমালা'
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৩১

হাতের লেখায় ছাপা দ্বিতীয় কাব্যসংকলন, সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত। কবিতার সংখ্যা ২৬। নামপত্রে ব্যবহৃত মূল আলোকচিত্রটি ১৯৫৯ সালে সমীর সেনগুপ্ত কর্তৃক গৃহীত।
পদ্যসমগ্র-১
প্রথম প্রকাশ : জুলাই ১৯৮৯
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'শ্রীযুক্ত সাগরময় ঘোষ শ্রদ্ধাস্পদেষু'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৭১

কাব্যসংকলন, কবিকর্তৃক সম্পাদিত। এই খণ্ডে ছ'টি কাব্যগ্রন্থ স্থান পেয়েছে : 'হে প্রেম হে নৈঃশব্দ্য', 'ধর্মে আছো জিরাফেও আছো', 'অনন্ত নক্ষত্রবীথি তুমি অন্ধকারে', 'চতুর্দশপদী কবিতাবলী', 'হেমন্তের অরণ্যে আমি পোস্টম্যান' এবং 'উড়ন্ত সিংহাসন'। কবিতার সংখ্যা ৩৪৮।
কবির মৃত্যুর পরে এই খণ্ডের দ্বিতীয় সংস্করণ সম্পাদনা করেছেন সমীর সেনগুপ্ত। এই সংস্করণে বিস্তৃত গ্রন্থপরিচয় যোগ করা হয়েছে, বহু কবিতার প্রথম প্রকাশের কাল অথবা রচনাকাল নির্ধারিত করা সম্ভব হয়েছে।
নির্বাচিত প্রেমের কবিতা
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৯২
প্রকাশক :
প্রচ্ছদ : সুব্রত চৌধুরী
উৎসর্গ : 'সংগীতা ও গান্ধীকে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২ ও ৯৬

সংকলিত কাব্যগ্রন্থ। সম্পাদকের নাম নেই। সূচিপত্রের আগে তিনজন চিত্রকরের তিনটি রেখাচিত্র আছে—প্রকাশ কর্মকার, বিজন চৌধুরী ও শ্যামল দত্তরায়। কবিতার সংখ্যা ১৩৪। এমন কোনো কোনো রচনা এই সংকলনের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে যেগুলিকে কবি নিজে প্রেমের কবিতা বলে মনে করতেন না।
পদ্যসমগ্র-২
প্রথম প্রকাশ : ১ বৈশাখ ১৪০০ (এপ্রিল ১৯৯৩)
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'শীলাদি এবং গৌরদাকে' (শীলা ও গৌরকিশোর ঘোষ)
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৪৫

কবিকর্তৃক সম্পাদিত। ছ'টি কাব্যগ্রন্থ এখানে স্থান পেয়েছে—'সোনার মাছি খুন করেছি', 'পাড়ের কাঁথা মাটির বাড়ি', 'প্রভু নষ্ট হয়ে যাই', 'ছিন্ন বিচ্ছিন্ন', 'ভাত নেই, পাথর রয়েছে', 'সুন্দর এখানে একা নয়'। কবিতার সংখ্যা ২১৯, তাছাড়া একটি কাব্যনাটক, 'মনে রেখো'।
শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের এলেজি সংগ্রহ
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা, জানুয়ারি ১৯৯৩
প্রকাশক : কবয়ঃ
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮০

সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত। সম্পাদকের ভূমিকা, সূচিপত্র, এবং যাঁদের উপর এলেজিগুলি রচিত তাঁদের কয়েকজনের পরিচিতি আছে। সংকলিত কবিতার সংখ্যা ৪৪। প্রকাশ কর্মকার অঙ্কিত সাতটি স্কেচ আছে। এই বইটির দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে 'বিকল্প প্রকাশন' থেকে, ২০০০ সালে। নতুন আবিষ্কৃত বারোটি এলেজি যুক্ত হয়েছে বইটিতে।
পদ্যসমগ্র-৩
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯৫
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুনীল শীল
উৎসর্গ : 'ইভাদি ও ছোড়দা (শঙ্খ ঘোষ)-কে'
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৭৫

সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত। অন্তর্ভুক্ত কাব্যগ্রন্থের সংখ্যা ৯— 'সুখে আছি', 'ঈশ্বর থাকেন জলে', 'অস্ত্রের গৌরভীন একা', 'জ্বলন্ত রুমাল', 'কবিতার তুলো ওড়ে', 'পাতাল থেকে ডাকছি', 'পরশুরামের কুঠার', 'মানুষ বড়ো কাঁদছে', এবং 'ভালোবেসে ধুলোয় নেমেছি'। কবিতার সংখ্যা ৩২১।
পদ্যসমগ্র-৪
প্রথম প্রকাশ : নভেম্বর ১৯৯৫
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৭৫

সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত। এগারোটি কাব্যগ্রন্থ এই খণ্ডে স্থান পেয়েছে : 'আমি ছিঁড়ে ফেলি ছন্দ তন্তুজাল', 'হেমন্ত যেখানে থাকে', 'এই আমি যে পাথরে', 'আমাকে দাও কোল', 'আমি চলে যেতে পারি', 'মন্ত্রের মতন আছি স্থির', 'অঙ্গুরী তোর হিরণ্যজল', 'সুন্দর রহস্যময়', 'আমি একা বড়ো একা', 'প্রচ্ছন্ন স্বদেশ' এবং 'পুণ্যিপুকুর পুষ্করিণী'। কবিতার সংখ্যা ২৫১।
শক্তি চট্টোপাধ্যায়
প্রথম প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬
প্রকাশক : বসুমতী কর্পোরেশন লিমিটেড
প্রচ্ছদ : পৃথ্বীশ গঙ্গোপাধ্যায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৮৮

সমীর সেনগুপ্ত সম্পাদিত শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের সংকলনগ্রন্থ। তাঁর জীবৎকালে প্রকাশিত প্রতিটি কাব্যগ্রন্থ থেকে অন্তত একটি করে কবিতা, 'কুয়োতলা' উপন্যাসটি, ছোটগল্প, ছোটদের জন্য গল্প, ভ্রমণকাহিনী। এই একটি বই থেকে যেন পাঠক শক্তির সমগ্র সাহিত্যকর্মের স্বাদ পেতে পারেন, সেদিকে দৃষ্টি রেখে বইটি সম্পাদনা করা হয়েছে। এই রকম একটি গ্রন্থের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করেছিলেন শক্তির ভক্ত পাঠক, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তৎকালীন সংস্কৃতিমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, মূলত তাঁরই উৎসাহে বইটি এই সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রকাশিত হয়।
টরে টক্কা
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৯৬
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : দেবাশিস রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

ছড়াসংগ্রহ। মোট ছড়ার সংখ্যা ৩৬।
পদ্যসমগ্র-৫
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯৭
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৩২৮

মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায় সম্পাদিত। এগারোটি কাব্যগ্রন্থ এই খণ্ডে স্থান পেয়েছে : 'যুগলবন্দী', 'যেতে পারি কিন্তু কেন যাবো', 'কোথাকার তরবারি কোথায় রেখেছে', 'কক্সবাজারে সন্ধ্যা', 'ও চিরপ্রণম্য অগ্নি', 'মিষ্টি কথায়, বিষ্টিতে নয়', 'সন্ধ্যায় সে শান্ত উপহার', 'এই তো মর্মরমূর্তি', 'বিষের মধ্যে সমস্ত শোক', এবং 'আমাকে জাগাও'। কবিতার সংখ্যা ৩৬৫।
কিছু মায়া রয়ে গেলো
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯৭
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

নানা পত্রিকায় প্রকাশিত ৮৯টি কবিতার সংগ্রহ।
পদ্যসমগ্র-৬
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ১৯৯৯
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২৭৬

মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায় সম্পাদিত। সাতটি কাব্যগ্রন্থ এই খণ্ডে স্থান পেয়েছে : 'ছবি আঁকে, ছিঁড়ে ফ্যালে', 'জঙ্গলে বিষাদে আছে', 'সেরা ছড়া', 'বড়োর ছড়া', 'টরে টক্কা', 'কিছু মায়া রয়ে গেলো', এবং 'পুরোনো সিঁড়ি'। এ ছাড়া কিছু গান, এবং 'অগ্রন্থিত শক্তি চট্টোপাধ্যায়' থেকে কিছু চতুর্দশপদী কবিতা। কবিতার সংখ্যা ৩৬০।
সকলে প্রত্যেকে একা
প্রথম প্রকাশ : নভেম্বর ১৯৯৯
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : প্রবীর সেন
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

নানা পত্রিকায় প্রকাশিত ৭১টি কবিতার সংগ্রহ। উপরি-উক্ত তিনটি গ্রন্থের কবিতাগুলি নানা জনের সাহায্যে উদ্ধার করে গ্রন্থবদ্ধ করেছেন কবিপত্নী মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায়।
পদ্যসমগ্র-৭
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ২০০০
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৪০৫

মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায় সম্পাদিত। দুটি কাব্যসংকলনের কবিতাসমূহ এখানে স্থান পেয়েছে, 'সকলে প্রত্যেকে একা' ও 'অগ্রন্থিত শক্তি চট্টোপাধ্যায়'। কাব্যগ্রন্থ না বলে এ-দুটিকে কাব্যসংগ্রহই বলা হচ্ছে, কারণ দ্বিতীয়োক্তটি তো সংকলন বটেই, 'সকলে প্রত্যেকে একা'ও, তাঁর মৃত্যুর পরে তাঁর পত্নী মীনাক্ষী কর্তৃক সংগৃহীত কবিতার সংকলন। এটিকে কাব্যগ্রন্থ বলা যাচ্ছে না, কারণ কবিতাগুলি কবিকর্তৃক নির্বাচিত নয়। এমনই আরেকটি বই হল পদ্যসমগ্র-৬'এ প্রকাশিত 'কিছু মায়া রয়ে গেলো'। কবিতার সংখ্যা ৪৭৭।
অগ্রন্থিত পদ্য
প্রথম প্রকাশ : আগস্ট, ২০০৫
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ :
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০৮
ISBN : 81-7756-514-1

সম্পাদনা : মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায়। বিভিন্ন সময়ে অনূদিত বিচ্ছিন্ন কবিতা সংকলিত হয়েছে এই গ্রন্থে। এই গ্রন্থে সংস্কৃত থেকে ভগবদ্‌গীতা ও সামসংগীত এর অনুবাদ যেমন আছে, তেমনি ভিনদেশীয় কবিদের যেমন - পাবলো নেরুদা, উইলিয়ম ব্লেক, হাইনরিস হাইনে, বোদলেয়ার, ভ্লাদিমির মায়াকোভস্কি, রবার্ট ফ্রস্ট, জন স্টিভেনস ওয়াড, ন্যানসি উইলারড প্রমুখের কবিতার অনুবাদ আছে। সঙ্গে ভারতীয় আঞ্চলিক ভাষার কবিদের যেমন - কাটম্মানিট্টা রামকৃষ্ণাণ, এন ভি কৃষ্ণ ভারিইয়ার, ওয়াইলোপিল্লিল, শ্রীধরমেনন, আজাব সিং হোনডল, অমৃতা প্রীতম, অমরজিৎ চন্দন, শহাব জাফরি এবং গীতাঞ্জলি বদরুদ্দিন প্রমুখের কবিতার অনুবাদও আছে।
প্রিয় ২৫
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ২০১২
প্রকাশক : শব্দহরিণ
প্রচ্ছদ : দেবব্রত ঘোষ
উৎসর্গ : শক্তি এখনো যাঁদের মধ্যে বেঁচে আছে, তাঁদের
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৩২

এই সংকলনে শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের ২৫টি কবিতা স্থান পেয়েছে। কবিতাগুলি নির্বাচন করে দিয়েছেন কবি দীপন মিত্র, অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়, তৃণাঞ্জন চক্রবর্তী, সত্যপ্রিয় মুখোপাধ্যায় ও কবিপত্নী মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায়।





গদ্যসংকলন


গদ্যসংগ্রহ-১
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা ১৯৯৬
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : দেবাশিস রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৮ ও ৫০০

প্রথম খণ্ডটি নিরুপমের আখ্যান এই নামে অভিহিত। এই খণ্ডে 'গদ্যের গার্হস্থ্যে' নামে একটি প্রবন্ধ ছাড়া, ৭টি উপন্যাস স্থান পেয়েছে। সেগুলি হল 'কুয়োতলা', 'আমি চলে যাচ্ছি', 'নিরুপম একাকী' (দুজন একাকী), 'হৃদয়পুর', 'দাঁড়াবার জায়গা', 'বিবিকাহিনী' এবং 'অবনী বাড়ি আছো'। এই খণ্ডের গ্রন্থপরিচয় অংশে 'কুয়োতলা' উপন্যাস এর মানবেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় ও সন্দীপন চট্টোপাধ্যায় কর্তৃক গ্রন্থ আলোচনা এবং শ্যামল গঙ্গোপাধ্যায় কর্তৃক 'অবনী বাড়ি আছো' র গ্রন্থ আলোচনা অন্তর্ভুক্ত।
গদ্যসংগ্রহ-২
প্রথম প্রকাশ : বইমেলা, জানুয়ারি ১৯৯৭, মাঘ ১৪০৩
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : দেবাশিস রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০ ও ৩৮২

দ্বিতীয় খণ্ডটি আখ্যানবিচিত্রা নামে অভিহিত। এই খণ্ডে ৪টি উপন্যাস ও ৩০টি গল্প আছে। উপন্যাস ৪টি হল : 'লুসি আর্মানীর হৃদয় রহস্য', 'হাই সোসাইটি', 'কিন্নর কিন্নরী' এবং 'নিরুপম একাকী' (দুজন একাকী)। গল্পগুলি হল : 'মৃতের সহিত সাক্ষাৎকার' 'রক্তের ভিতরে খেলা', 'অবজারভেটারী', 'তিস্তা টাইগার', 'প্রীতিভাজনেষু', 'সাপের খোলস', 'পাগল হতে আসা', 'বধ্যভূমি', 'কালো ঘোড়া', 'ঘরে বাইরে', 'মাধবের অন্তর্ধান', 'ঈশেন', 'নিজস্ব', 'দুদিনের দেবশিশু', 'মশারি', 'এই অসুখ', 'বস্ত্রে বৈরাগীর রঙ', 'বেলা কতো বড়ো', 'উটের গ্রীবা', 'সহোদর', 'তিনি অনুপস্থিত', 'হলুদপোড়া', 'সখের যাত্রা', 'অর্জুনবিষাদ', 'প্রেমে উপেক্ষিতা' (রূপচাঁদ পক্ষী ছদ্মনামে), 'অম্বা ও দেবব্রত', 'রামচন্দ্র শর্বরী', 'সোম/তারা', 'অর্জুন' এবং 'উত্তরা'।
গদ্যসংগ্রহ-৩
প্রথম প্রকাশ : বৈশাখ ১৪০৪, এপ্রিল ১৯৯৭
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : দেবাশিস রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১০ ও ৫২৬

তৃতীয় খণ্ডটি ভ্রমণবিচিত্রা নামে অভিহিত। এই খণ্ডে ৪টি ভ্রমণকাহিনী স্থান পেয়েছে। সেগুলি হল : 'উইকএণ্ড', 'চলো বেড়িয়ে আসি' (খণ্ড ১/২), 'রূপকথার কলকাতা' এবং 'জঙ্গলে পাহাড়ে'।
গদ্যসংগ্রহ-৪
প্রথম প্রকাশ : অগ্রহায়ণ ১৪০৪, নভেম্বর ১৯৯৭
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : দেবাশিস রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ২ ও ৪১৪

চতুর্থ খণ্ডটিতে শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কিশোর সাহিত্য ও অগ্রন্থিত রচনাগুলি সংকলিত হয়েছে। কিশোর সাহিত্য এর মধ্যে 'খৈরী, আমার খৈরী', 'চলো তিতির সঙ্গে' এবং 'হাতি ধরিয়ে নায়ার' আছে। অগ্রন্থিত রচনার মধ্যে কিশোর সাহিত্য হিসেবে গ্রন্থবদ্ধ হয়েছে 'ফুলঝুরি রংমশালের দিনরাত্রি', 'বাবরের বঙ্গদর্শন', ও 'বড় হতে আসা'। অগ্রন্থিত উপন্যাস - 'ডাকপাখির পালক', 'ছোট গাছপালা' ও 'এলোমেলো হাওয়া'। ডিটেকটিভ হিসেবে (গুপ্তচর-গুপ্তচরী) - 'ব্ল্যাক এঞ্জেল' বা কৃষ্ণপরী, 'মোহময়ী কাউন্টেস মার্গারেট', 'টোকিওর গোলাপসুন্দরী', 'পুতুলের সংসার', লাল ক্রিসন্থিমাম আর 'ওরিয়েন্টাল বিউটি' ঈভা এবং 'লখিন্দরের বাসর'। ফিচার - 'রূপচাঁদ পক্ষীর রোজনামচা', 'সড়ক সৌধ কানাগলি', ও 'অ-নির্বাচনীয়'। অগ্রন্থিত ভ্রমণ - 'উড়ো চিঠির ঝাঁক', 'চলো বেড়িয়ে আসি', 'মেলার অপেক্ষায়', 'বত্তিরিশ শিরালায় নাগপঞ্চমীর মেলা', 'ভূটিয়া শহর সামচিতে', 'বস্ত্রে বৈরাগীর রং', 'ফুটপানি একটি গাঁয়ের নাম', 'মাণ্ডবী-জুয়ারির দেশে', 'হাট্টিমা টিম টিম যারা হাটে পাড়ে ডিম', 'ঘুরতে ঘুরতে ঘূর্ণীর টানে চেনাপথের বাইরে', 'এলোমেলো জীবনযাপন' এবং 'সুইডেনে পদ্য পড়তে'। অগ্রন্থিত সাহিত্য ও সমালোচনা - 'ভালোবাসা যায় না', 'সমরকালীন চিঠিপত্র : রাইনার মারিয়া রিলকে', 'কা কবিতা?', 'স্বরচিত কবিতা পাঠ', 'মির্জা গালিবের কবিতা', 'ভাতের পর ঘুমের ওষুধ', 'আমার প্রিয় রবীন্দ্রনাথের কবিতা', 'রবীন্দ্রনাথ : আমার মতো করে', 'বিদেশী শব্দে বাংলাভাষা নষ্ট করা হচ্ছে', 'তিয়াত্তরে পা দিয়ে নিশিন্ত', 'কাব্যনাট্য ভাববো?', 'কেউ ভোলে না, কেউ ভোলে' এবং 'দু'চোখে দুই সুন্দরবন'। অগ্রন্থিত স্মৃতিচারণা - 'এইসব পদ্য', 'কে এই মোহাম্মদ শাহ বাঙালী?', 'স্মৃতির নবান্ন', 'যোগব্রত, আমাদের যোগো', 'পদ্যাপদ্য সম্পর্কে দু'এক কথা', 'ভুল হয়ে গেছে, ব্যবহারে', 'আমি এখন যা লিখছি / আমার সমাধি তুমি চিনে রাখো', 'প্রসঙ্গত', 'গলির নীল হাতছানি', 'আমার মাস্টারমশাইরা', 'স্বপ্নের পিকনিক', 'নীলরতন হাসপাতালের ডায়েরি', 'শৈশব, শীত, স্মৃতি' এবং 'এলোমেলো'। পরিশিষ্ট অংশে অনুবাদ গল্প হিসেবে রয়েছে 'নীলরঙের ফুলের তোড়া'।
এই কাব্য এই হাতছানি
প্রথম প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ১৯৯৭
প্রকাশক : দে'জ পাবলিশিং
প্রচ্ছদ : দেবাশিস রায়
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৭৪

নানা পত্রিকায় শক্তির যে সব সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়েছিল, তার প্রায় সবগুলিকে একত্রিত করেছেন দেবতোষ বসু তাঁর সম্পাদিত 'এই কাব্য এই হাতছানি' গ্রন্থে। গ্রন্থটিতে অলোকরঞ্জন দাশগুপ্ত এর মুখবন্ধ রয়েছে।
অগ্রন্থিত পদ্যগদ্য
প্রথম প্রকাশ : জানুয়ারি ২০০৩
প্রকাশক : আনন্দ পাবলিশার্স প্রা. লি.
প্রচ্ছদ : সুব্রত চৌধুরী
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১৮ ও ১৭৭

সংকলন ও সম্পাদনা সমীর সেনগুপ্ত। এই বইতে 'ছিন্নবিচ্ছিন্ন' সমেত প্রায় দ্বিশতাধিক কবিতা আছে যা শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের সাত খণ্ড 'পদ্যসমগ্র' তে নেই। সংগৃহীত গদ্যরচনাগুলি নানা ধরনের সাক্ষাৎকার ও আত্মকথা-বিষয়ক রচনা। এই ধরনের ১৮টি গদ্যরচনা আছে। বইটিতে অগ্রন্থিত কবিতাগুলির প্রথম পঙ্‌ক্তি ও কবিতার নামের বর্ণনাক্রমিক সূচী দেওয়া আছে।
আমার রবীন্দ্রনাথ
প্রথম প্রকাশ : সেপ্টেম্বর, ২০১২
প্রকাশক : পরম্পরা
প্রচ্ছদ : দেবাশিস সাহা
উৎসর্গ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা : ??
ISBN : 978-93-80869-91-9

ভূমিকা ও সম্পাদনা মীনাক্ষী চট্টোপাধ্যায়। এই বইতে রবীন্দ্রনাথ সম্পর্কে শক্তির কয়েকটি গদ্যরচনা এবং দু'তিনটি সাক্ষাৎকার কিছু কবিতা ও ছড়া রাখা হয়েছে।





ভাষান্তরে শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কবিতা


Fifty Poems of Shakti Chattopadhyay
First Published : 15 June, 1985
Publisher : Maya Sengupta
Cover :
Pages : 7 & 102

'Fifty Poems of Shakti Chattopadhyay' সমীর সেনগুপ্ত অনূদিত। দ্বিভাষিক গ্রন্থ : বাঁদিকের পৃষ্ঠায় মূল বাংলা এবং ডানদিকে তার ইংরেজি অনুবাদ। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ৫০। নামপত্রে লেখা : 'ফর প্রাইভেট সার্কুলেশন অনলি; নট ফর সেল'।
শঙ্খ ঘোষ ঔর শক্তি চট্টোপাধ্যায় কী কবিতাঁয়ে
প্রথম প্রকাশ : ১৯৮৭
প্রকাশক : রাজকমল পেপারব্যাকস
প্রচ্ছদ :
পৃষ্ঠাসংখ্যা :

হিন্দি অনুবাদে দুই বাঙালি কবির কাব্যসংকলন। দুই কবির সংক্ষিপ্ত জীবনপঞ্জি এবং দুজনের দুটি পৃথক ভূমিকা সহ। শক্তির কবিতার সংখ্যা ৩৪, অনুবাদ করেছেন কেদারনাথ সিংহ। শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কবিতার হিন্দি অনুবাদের এটি সম্ভবত এখন পর্যন্ত একমাত্র প্রচেষ্টা।
THE DIFFIDENT PEACOCK
First Published : 6 October, 1991
Publisher : Biswagyan
Cover :
Pages : 24

'THE DIFFIDENT PEACOCK' লীলা রায় অনূদিত ২২টি কবিতার অনুবাদ সংগ্রহ। শেষ প্রচ্ছদে কবির স্বাক্ষর সহ নিজের হস্তাক্ষরে এক পঙ্‌ক্তি কবিতা।
REALM OF MY HEART
প্রথম প্রকাশ : Bookfair, 3 February 1994
Publisher : Biswagyan
Cover : Ganesh Basu
Pages :

'REALM OF MY HEART' ছন্দা সেন অনূদিত ৩৩টি কবিতার অনুবাদ সংগ্রহ।
I CAN BUT WHY SHOULD I GO
First Published : 1994
Publisher : Sahitya Akademi
Cover :
Pages : 12 & 57

'I CAN BUT WHY SHOULD I GO' অকাদেমি পুরস্কার প্রাপ্ত কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদ, ওড়িয়া কবি জয়ন্ত মহাপাত্র কৃত। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ৫৭।
Departures : The last poems of Shakti Chattopadhyay
First Published : 25 November, 2005
Publisher : Gangchil
Cover : Debabrata Ghosh
Dedicated : To Buddhadev Bhattacharjee who admires Shakti
Pages : 44
ISBN : 81-902823-1-X

'Departures : The last poems of Shakti Chattopadhyay' translated by Sankarlal Bhattacharjee. দ্বিভাষিক গ্রন্থ : বাঁদিকের পৃষ্ঠায় মূল বাংলা এবং ডানদিকে তার ইংরেজি অনুবাদ। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ১০। প্রত্যেকটি কবিতার সঙ্গে দেবব্রত ঘোষের অলংকরণ রয়েছে।
POEMS OF A REBEL
First Published : September 4, 2011
Publisher : CreateSpace Independent Publishing Platform
Cover : Debabrata Ghosh
Dedicated :
Pages : 50
ISBN : 978-1463662127

'POEMS OF A REBEL' translated by Pinaki Poddar. দ্বিভাষিক গ্রন্থ : বাঁদিকের পৃষ্ঠায় মূল বাংলা এবং ডানদিকে তার ইংরেজি অনুবাদ। অনূদিত কবিতার সংখ্যা ১০। প্রত্যেকটি কবিতার সঙ্গে দেবব্রত ঘোষের অলংকরণ রয়েছে।
Parabaas, April, 2013